How to open a payoneer account – কিভাবে খুলবেন পেওনিয়ার একাউন্ট ?

how to open a payoneer account – কিভাবে খুলবেন পেওনিয়ার একাউন্ট : বর্তমানে ইন্টারনেটে বেশ কয়েকটি ভার্চুয়াল ব্যাংক গড়ে উঠেছে তার মধ্যে অন্যতম হলো পেওনিয়ার।ফ্রিল্যান্সারদের পেওনিয়ার একাউন্ট সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন হয়। 

 

বর্তমানে বাংলাদেশের ফ্রিল্যান্সার এবং ব্যাংকিং লেনদেনের সাথে জড়িত মানুষগুলোর কাছে জনপ্রিয়তা পাচ্ছে পেওনিয়ার। তবে আপনি যদি এখনো না জেনে থাকেন পেওনিয়ার একাউন্ট কিভাবে খুলতে হয় তাহলে এই আর্টিকেলটি। 

 

 চলুন জেনে নেওয়া যাক how to open a payoneer account সম্পূর্ণ প্রসেস ! 

 

কিভাবে খুলবেন পেওনিয়ার একাউন্ট ? how to open a payoneer account?

পূর্ণাঙ্গ ভাবে একটি পেওনিয়ার একাউন্ট খোলার নিয়ম খুব সোজা। তবে আপনি যদি ভুল তথ্য প্রদান করে থাকেন তাহলে সেই ক্ষেত্রে আপনার একাউন্ট সাসপেন্ড হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। 

শুধু তাই নয় বর্তমানে এই প্রতিষ্ঠানটি তাদের নতুন গ্রাহকদের জন্য 25 ডলার বোনাস দিচ্ছে। এবং আপনিও যদি প্রকাশ পেতে চান তাহলে আপনাকে নিচের স্টেপ বাই স্টেপ রুলস অনুসরণ করতে হবে। 

 

  • পেওনিয়ার একাউন্ট খোলার জন্য এই লিঙ্কে চলে যান !
  • লিংকে প্রবেশ করার পর আপনার প্রবেশ করার পর আপনার সামনে ফটো একে একটি ইন্টারফেস শো করবে।
  • অতোপর আপনি সাইন আপ অপশন এ ক্লিক করে নির্ধারণ করে নিন আপনি কোন কাজের জন্য এই অ্যাকাউন্টটি তৈরি করতে চান। 
  •  অতঃপর আপনার কাছ থেকে পেওনিয়ার যে ধরনের তথ্য-উপাত্ত চাচ্ছে সব প্রদান করুন।
  • এরপর আপনি রেজিস্ট্রেশন করার জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত। 
  •  আপনার নাম ঠিকানা জন্ম তারিখ ফোন নম্বর দিন।
  •  বলে রাখা ভালো অবশ্যই আপনার একটি এনআইডি কার্ড থাকতে হবে। 
  •  এনআইডি কার্ডের ইংরেজি নামের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে এই ফরমটি পূরণ করবেন।
  •  সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আপনি পরবর্তী ধাপে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত।
  • ফোন নম্বরটি প্রদান করার পর আপনার ফোনে একটি ভেরিফিকেশন কোড পাঠানো হবে। সঠিক ওটিপি কোড নাম্বার প্রদান করুন।
  • এরপর আপনার কাছ থেকে আপনার এনআইডি কার্ড এবং আপনার ব্যাংকিং লেনদেনের যাবতীয় তথ্য চাওয়া হবে। 
  • আপনার দেশে যদি ওয়ার্ল্ড ব্যাংকিং সিস্টেম না থাকে তাহলে সেই ক্ষেত্রে ওয়ার্ল্ড ব্যাংকিং সিস্টেম লেখা ঘরে 000000 প্রদান করুন।
  • এরপর আপনার ব্যাংক একাউন্ট থেকে ব্যাংক এর অন্তর্ভুক্ত সেই ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নম্বর দেব। 
  • ব্যাংকের ব্রাঞ্চ সিলেক্ট করে দিন
  •  অতঃপর ব্যাংক সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য পূরণ করুন। 
  • সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে পেওনিয়ার আপনার অ্যাকাউন্ট রিভিউ করবেন। আপনি আপনি আপনার একাউন্টে সঠিক তথ্য দিয়ে থাকলে কিছুদিনের মধ্যে ব্যবহারের জন্য এখন প্রস্তুত হয়ে যাবে। 

নিচে সকল স্টেপ ছবি আকারে দেওয়া হলো!

পেওনিয়ার একাউন্ট

কিভাবে খুলবেন পেওনিয়ার একাউন্ট ? how to open a payoneer account

স্টেপ নং ১

পেওনিয়ার একাউন্ট

স্টেপ নং ২

স্টেপ নং ৩ 

পেওনিয়ার একাউন্ট

স্টেপ নং ৪

পেওনিয়ার একাউন্ট

স্টেপ নং ৫

পেওনিয়ার একাউন্ট

স্টেপ নং ৬

পেওনিয়ার একাউন্ট

রিভিউ এর জন্য প্রস্তুত !

এবং একবার আপনার অ্যাকাউন্ট রিভিউ করা হয়ে গেলে আপনি পাবেন 25 ডলার বোনাস। 

এখন আপনার একটি পেওনিয়ার একাউন্ট খোলা হয়ে গেল। প্রশ্ন আসতে পারে এই পেওনিয়ার একাউন্ট এর কাজ কি?

 অবশ্যই পেওনিয়ার একাউন্ট এর কোন না কোন কাজ রয়েছে। 

 

  • সাধারণত আমাদের দেশের ফ্রিল্যান্সাররা ব্যাংকিং লেনদেনের ক্ষেত্রে ব্যবহার করে থাকে এই একাউন্ট।
  • বর্তমানে কেবলমাত্র একটি একমাত্র ভার্চুয়াল ব্যাংক যেটি বাংলাদেশ ব্যাংক সমর্থন করে। 
  • সে কারণে বাংলাদেশ থেকে পেওনিয়ার ব্যবহার করার সম্পূর্ণ নিরাপদ। 
  • এছাড়াও পেওনিয়ার একাউন্ট এর মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন মার্কেটপ্লেস থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন যেটি কিনা উইথড্র করতে পারবেন পেওনিয়ার ব্যবহার করে। 

 

সুতরাং এবার নিশ্চয়ই বুঝতে পেরেছেন এই অ্যাপটি আপনার জন্য কতটুকু গুরুত্বপূর্ণ। পেওনিয়ার থেকে সর্বাধিক লেনদেন করা হয় ফাইভার ব্যবহার করে। বলার অপেক্ষা রাখে না এটি হলো একটি ফ্রিল্যান্সিং ফিল্ড বা মারকেটিং প্লেস। সুতরাং আপনি যদি পেওনিয়ার এর মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করতে চান তাহলে সেক্ষেত্রে আপনাকে ফাইবারে একটি অ্যাকাউন্ট খুলে নিতে হবে।

শুধু তাই নয় আপনি যদি মার্কেটপ্লেসে গিয়ে কোন কোন অর্ডার করতে চান তাহলে সেক্ষেত্রে আপনাকে ইনভেস্ট করতে হবে পেওনিয়ার একাউন্ট এর মাধ্যমে। পেওনিয়ার এর মাধ্যমে আপনি চাইলে সেখানে করতে পারবেন ডিপোজিট এবং আপনার কাঙ্খিত অর্ডার ফুলফিল করার জন্য আপনার ক্লায়েন্টকে পে করতে পারবেন। 

ফাইবার একাউন্ট কিভাবে খুলবো?

চলুন step-by-step দেখে নেয়া যাক কিভাবে একটি ফাইবার একাউন্ট খুলতে হয় ! 

  • ফাইবার একাউন্ট খুলতে হলে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন। 
  • সাইন আপ অপশন আসবে।
  • ফেসবুকের মাধ্যমে চাইলে সাইনইন করে নিতে পারেন। এছাড়া অন্য বেশ কয়েকটি পদ্ধতি রয়েছে সেগুলো অনুসরণ করতে পারেন। 

তো এই ছিল একটি পূর্ণাঙ্গ ভাবে পেওনিয়ার একাউন্ট খোলার নিয়ম সমূহ। তার পরেও যদি আপনি কোন ধরনের অসুবিধা ফেস করেন তাহলে আমাদেরকে জানাতে ভুলবেন না। যেকোনো ধরনের অসুবিধার সম্মুখীন হলে আমাদের কমেন্ট বক্সে আপনার জন্য উন্মুক্ত রয়েছে। চাইলে অভিযোগ অথবা সাজেশন জানাতে পারেন কমেন্ট বক্সে। একাউন্ট খুলতে গিয়ে যদি কোন ধরনের সমস্যা সম্ভব হয় না করেন তাহলে সেই সমস্যা জানাতে পারেন। 

 

 তার পাশাপাশি আজকের টিউটোরিয়ালে ফাইবার একাউন্ট খোলার নিয়মও আংশিকভাবে বর্ণনা করা হয়েছে। সুতরাং এই অ্যাকাউন্ট খুলতে গিয়েও যদি কিছুটা সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় সেটাও আমাদেরকে অবগত করতে পারেন। আমরা আমাদের যথাসাধ্য চেষ্টা করব আপনাকে সহযোগীতা করার। 

 আজকের আর্টিকেলটি এই পর্যন্তই ! আশা করি আর্টিকেল এর মাধ্যমে কিছুটা হলেও উপকৃত হয়েছেন।

 আমাদের অন্য আর্টিকেল পড়ার আমন্ত্রণ রইল ! 

READ MORE:

 

 

1 thought on “How to open a payoneer account – কিভাবে খুলবেন পেওনিয়ার একাউন্ট ?”

Leave a Comment