জন্ম নিবন্ধন যাচাই – জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড

  • জন্ম নিবন্ধন যাচাই  করাটা বর্তমান সময়ে খুবই গুরুত্বপূর্ণ । জন্ম নিবন্ধন যাচাই করা কে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করণ বলা হয় ।  অনেকে কেবলমাত্র জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার জন্য বিভিন্ন কম্পিউটারের দোকানে ছুটে ছুটে বেড়ান ।  কারণ তারা জানেন না কিভাবে সঠিক উপায়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে হয় ।  এবং সে কারণে আমাদের আজকের আর্টিকেল সাজানো হয়েছে, কিভাবে সঠিক নিয়মে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করবেন সে বিষয়ে । 

তো চলুন বিস্তারিত দেখে নেওয়া যাক ! 

 অনলাইন জন্ম নিবন্ধন যাচাই

অনলাইন জন্ম নিবন্ধন যাচাই করণ পদ্ধতি খুব সোজা ।  এর জন্য আপনাকে যেতে হবে এই লিংকে । 

  এখানে ক্লিক করুন ! 

 

জন্ম নিবন্ধন যাচাই

ফটো ক্রেডিটঃ অর্ডিনারী আইটি 

 

এরপর আপনার সামনে উপরে  দেখানো ছবির মত একটি পেজ আসবে ।  এটি মূলত একটি তথ্য যাচাই করণ পেজ । বার্থ রেজিস্ট্রেশন নাম্বার  লেখা জায়গায় আপনার বার্থডে রেজিস্ট্রেশন নাম্বার টি দিন এবং অতঃপর ডেট অফ বার্থ লেখা জায়গায় আপনার জন্ম তারিখ দিন ।

 

  সাধারণত বিভিন্ন সময়ে এই ওয়েব সাইটের বিভিন্ন ধরনের আপডেট  উপস্থিত হবার ফলে ঠিক সঠিক ভাবে বলা জাচ্ছে না কোন ফরমেটে ডেট অফ বার্থ অর্থাৎ আপনার জন্ম তারিখ লিখতে হবে । তবে ধরে নেওয়া যাক,উপরে ছবির মত করে দেখানো ফরমেটে ডেট অফ বার্থ লিখতে হবে । 

অতঃপর আপনার সামনে এমন একটি পেজ এসে হাজির হবে । যদি আপনার ডেট অফ বার্থ এবং জন্ম নিবন্ধন এর নাম্বার ঠিক ঠাক থাকে তাহলে এই পেজে এসে আপনার সামনে হাজির হবে । অতঃপর সকল তথ্য ঠিকঠাকমতো মিলিয়ে নিন । এবং ঠিক এইভাবে  জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে হয় । এবং এটি মূলত জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার নিয়ম । 

জন্ম-নিবন্ধন-যাচাই

ফটো ক্রেডিটঃ অর্ডিনারী আইটি 

 

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড পদ্ধতি

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করার জন্য আপনার প্রয়োজন পড়বে একটি প্রিন্টার ,  এ ফোর সাইজ এর একটি কাগজ , এবং অবশ্যই এমন একটি ডিভাইস এর প্রয়োজন পড়বে যা প্রিন্টার কে সাপোর্ট করে । সেটি মোবাইল ফোনে হতে পারে আবার  পিসি হতে পারে । 

 

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করার জন্য আপনাকে পৃন্ট কমান্ড এর মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করে নিতে হবে । অবশ্যই খেয়াল রাখবেন আপনার প্রিন্টারে যেন পর্যাপ্ত পরিমাণে কালি এবং কাগজ থাকে । 

 

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করার পর দেখে নিন জন্ম নিবন্ধন যাচাই তথ্য  ঠিক করেছে কিনা । 

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন  

এতক্ষণে আমরা কিভাবে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে হয় সে সম্পর্কে জানলাম ।এখন আমরা জানবো অনলাইনে কিভাবে জন্ম নিবন্ধনের জন্য আবেদন করতে হয় সে সম্পর্কে ।

 

জন্ম নিবন্ধন বাংলাদেশের ভূমিতে বাংলাদেশের একজন নাগরিক হিসেবে আপনার প্রথম পরিচয় পত্র। সাধারণত শিশুর জন্মের চার মাসের মাথায় জন্ম নিবন্ধন করে নেওয়াটা অত্যাবশ্যক এবং এ বিষয়ে সরকারের কড়া নির্দেশনা রয়েছে ।সুতরাং জন্ম নিবন্ধন আপনার সন্তান এবং আপনার সন্তানের ভবিষ্যতের জন্য কতটুকু গুরুত্ব বহন করতে পারে তা হয়তো নিশ্চয় এতক্ষণে উপলব্ধি করতে পেরেছেন।

 

 এবং জন্ম নিবন্ধনের আবেদন করার প্রক্রিয়াকে আরো সহজতর করার জন্য অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন পদ্ধতি চালু করা হয়েছে। এবং এই পদ্ধতি ব্যবহার করে খুব সহজেই আপনি আপনার শিশুর জন্য অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে পারবেন। এছাড়া জন্ম নিবন্ধন আবেদন এর পাশাপাশি জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার উপায় রয়েছে।

 

 তো চলুন বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক…

 

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন করার জন্য আপনাকে যেতে হবে এই লিংকে ।  এখানে ক্লিক করুন ! 

 

অতঃপর  আপনার সামনে এমন একটি পেজ আসবেঃ

ফটো ক্রেডিটঃ অর্ডিনারী আইটি 

 

অতঃপর নির্বাচন করুন লেখা জায়গায় ক্লিক করুন এবং আপনার কাছ থেকে যে সকল তথ্য যা হয়েছে সেগুলো যথাযথভাবে প্রদান করে । কিন্তু এরপরেও যদি , “নির্বাচিত নিবন্ধ কার্যালয় অনলাইন আবেদন সম্ভব নয়” এই ধরনের লেখা এসে থাকে তাহলে আপনাকে হাল ছেড়ে দিতে হবে ।  কেননা আপনি যে এলাকা থেকে অনলাইন  নিবন্ধন করতে চাচ্ছেন সে এলাকায় অনলাইন আবেদন অনুমোদন করে না ।  সে কারণে সেই সকল এলাকায় আপনাকে  সরাসরি অফিস অর্থাৎ কার্যালয় আবেদন করতে হবে । 

 

তবে বর্তমান সময়ে বাংলাদেশ সরকার সারা বাংলাদেশে এমনকি দেশের বিভিন্ন প্রত্যন্ত অঞ্চলের অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন পদ্ধতি চালু করেছে ।  সুতরাং আপনার এলাকায় যদি এখনও অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন পদ্ধতি চালু না হয়ে থাকে তাহলে সে ক্ষেত্রে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের কাছে আবেদন করতে পারেন । 

 

কিন্তু আপনার এলাকায় যদি ,  অনলাইনে আবেদন  সমর্থন করে তাহলে সে ক্ষেত্রে পরবর্তী ধাপগুলো অনুসরণ করে যথাযথ তথ্য দিয়ে ফরম পূরণ করুন ।  সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে 30 কার্যদিবসের মাথায় আপনার আবেদন  অনুমোদন করা হবে ।  যদি তা না থাকে তাহলে সে ক্ষেত্রে পুনরায় করতে হবে । 

 

অবশ্যই একটি জিনিস খেয়াল রাখবেন আপনি যখন অনলাইনে জন্ম সনদ আবেদন করতে যাবেন তখন এনআইডি কার্ডের সঙ্গে সম্পৃক্ততা রেখে ফরম পূরণ করবেন ।  যদি তা না করে থাকেন পরবর্তীতে ভোগান্তিতে পড়তে হতে পারে ।  বিশেষ করে স্কুল পর্যায় , এবং আপনার সন্তান এর বিভিন্ন নিবন্ধনের ক্ষেত্রে এই  ভোগান্তিতে বেশি পড়তে হতে পারে ।  সুতরাং যাতে ভোগান্তিতে পড়তে হয় সে জন্য সঠিকভাবে বারবার দেখে দেখে  ফরম ফিলাপ করুন । 

 

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড

 

আপনি যদি একদম হুবহু অর্থাৎ নিচে দেখানো ছবির মত করে জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করতে চান তাহলে সে ক্ষেত্রে কি করতে হবে?

ফটো ক্রেডিটঃ অর্ডিনারী আইটি 

অত্যন্ত দুঃখের সাথে জানানো যাচ্ছে ঠিক হুবহু এমনই জন্ম নিবন্ধন কপি আপনি ডাউনলোড করতে পারবেন না ।  এবং এই জন্ম নিবন্ধন কপিটি সংগ্রহ করার জন্য আপনাকে সরাসরি অফিসে যেতে হবে । 

 

কিছু সাধারণ প্রশ্ন

 

জন্ম নিবন্ধন কি ?

জন্ম নিবন্ধন ও হল এমন এক ধরনের সনদ যার মাধ্যমে একজন ব্যক্তি কোন ধরনের বয়সের উপর নির্ভর না করে রাষ্ট্রের  নাগরিক এবং বক্তা হিসেবে নিজের পরিচয় প্রদান করে থাকেন ।  এটি সাধারণত হাতে লিখিত অথবা কম্পিউটার প্রিন্টেড হয়ে থাকে । মূলত 2004 সাল থেকে বাংলাদেশের জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি আইন জারি করা হয় ।  যেখানে কোন ধরনের বয়স সীমা থাকে না । জন্ম সনদে মূলত ব্যক্তির নাম , পিতার নাম ,  মাতার নাম ,  অথবা অভিভাবকের নাম ,  ঠিকানা  ইত্যাদি যথাযথভাবে তুলে ধরা হয়। এবং পরবর্তীতে বিভিন্ন ধরনের নিবন্ধন  কার্যক্রমে মূলত এই জন্ম নিবন্ধন ব্যবহার করা হয়ে থাকে ।  একটি জন্ম নিবন্ধন আপনাকে একজন বাংলাদেশের নাগরিক  হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে থাকে । 

 

জেনে নিন গ্রাফিক্স ডিজাইন কিভাবে করবেন ?

জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার জন্য কি কি কাগজপত্র প্রদান করতে হবে?  

যার জন্ম নিবন্ধন যাচাই করা হবে সে যদি নবজাতক সন্তান হয়ে থাকে তাহলে সে যে ক্লিনিকে জন্মগ্রহণ করেছে সেই ক্লিনিকের একটি সার্টিফিকেট পৌরসভায় জমা দিতে হবে ।  এছাড়া আপনার যদি  ক্লিনিক সার্টিফিকেট না থাকে তাহলে সেই ক্ষেত্রে এসএসসি সার্টিফিকেট ,  এইচএসসি সার্টিফিকেট ,  অথবা ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি প্রদান করতে হবে । 

 

1 thought on “জন্ম নিবন্ধন যাচাই – জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড”

Leave a Comment